ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে বস্ত্র অধিদপ্তর পরিচালিত এবং বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত একটি নব্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।রংপুর বিভাগের টেক্সটাইল বিষয়ে জ্ঞানঅর্জনে সুযোগ এবং এ খাতের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন হিসেবে ২০১৮ সালে এ প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু।

বাংলাদেশের প্রখ্যাত পরমাণু বিজ্ঞানী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পতি ডক্টর এম এ ওয়াজেদ মিয়া স্যার কে স্মরণ করে এ কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।২০১৮ সালে পহেলা নভেম্বর পীরগঞ্জের পুত্রবধূ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাত ধরেই শুভ উদ্ধোধন এর মাধ্যমে পথচলা শুরু আমাদের এই প্রানের ক্যাম্পাসের!

রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ১৯ কি.মি.পশ্চিমে খরস্রোতা যমুনাশ্বেরী নদীর কিনারা ঘেষে প্রাকৃতিক নিবিড় ও নির্জন পরিবেশে অবস্থিত।ক্যাম্পাসের সাথে সংলগ্ন রয়েছে ৩০৩ মিটার দৈর্ঘ্যের ওয়াজেদ মিয়া সেতু যা রংপুর ও দিনাজপুর কে সংযোগে ভূমিকা রয়েছে।শিক্ষার্থীদের বিকেলে আড্ডা-বিনোদন এবং ক্যাম্পাসের পারিপার্শ্বিক সৌন্দর্য্যের এক অন্যতম পরিস্ফুটন এই ওয়াজেদ মিয়া সেতুটি।

ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং কলেজে মূলত টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং ডিগ্রিতে চার বছর মেয়াদী বি.এসসি ইন টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং ডিগ্রি প্রদান করা হয়।প্রতি বছর প্রতিযোগিতামূলক ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে মোট ৪ টি ডিপার্টমেন্টে ১২০ আসনে শিক্ষার্থীদের ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়।


চারটি ডিপার্টমেন্ট হলো :

  • Wet Process Engineering
  • Apparel Engineering
  • Fabric Engineering
  • Yarn Engineering

পূর্বে বুটেক্স অধিভুক্ত কলেজ ছিল পাঁচটি।এরপর বুটেক্স অনুমোদিত ষষ্ঠ কলেজ হিসেবে যুক্ত হয় এবং ২০১৯ সালে প্রথম বর্ষ ও ২০২০ সালে নতুন ব্যাচ হিসেবে দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এখন কলেজটিতে মোট অধ্যয়নরত শিক্ষাথীদের সংখ্যা মোট ২৩৭ জন।সিনিয়র জুনিয়র এর প্রতি পরস্পর শ্রদ্ধা ও সম্মান, সহযোগিতা, সহমর্মিতা এ সকলের যোগসূত্রে বর্তমানে এটি একটি ভালোবাসার পরিবার।

শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশের জন্য নিয়মিত বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে থাকে।নতুন ক্যাম্পাস হলেও পড়ালেখা খেলাধুলা,অন্যান্য সাংস্কৃতিক ও সামাজিক কর্মকান্ডে কোন অংশেই পিছিয়ে নেই আমরা। পড়াশোনার দিকটি বিশেষভাবে খেয়াল রেখার পাশাপাশি সকল সাংস্কৃতিক কাজগুলোতে শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্তভাভে অংশগ্রহন করে।বাংলাদেশের ইতিহাস ও আদর্শকে সামনে রেখে সরকারি ছুটির দিনগুলো পালিত হচ্ছে বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে।

কলেজের শিক্ষার মান বজায় রাখার জন্য আমাদের কলেজে রয়েছে আধুনিক মানের সমস্ত পরীক্ষাগার ও অত্যাধুনিক এবং সময়োপযোগী সকল যন্ত্রপাতি।সেই সাথে রয়েছে উন্নতমানের একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবন, শিক্ষার্থীদের জন্য অবকাঠামোগতভাবে উন্নত পৃথক হল এবং আবাসিক স্টাফ কোয়ার্টার।
বুটেক্স সহ অন্যান্য টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং কলেজগুলোর মতো এখানেও রয়েছে সকল সুযোগ-সুবিধা।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই কলেজের উন্নয়ের দিকে সর্বদা সোচ্চার দৃষ্টি প্রদান করেন।

সুদৃশ্য এই কলেজটিতে রয়েছে:

  • বিশাল একাডেমিক ভবন
  • অডিটোরিয়াম
  • লাইব্রেরি ভবন
  • অধ্যক্ষের বাস ভবন
  • অফিসার্স ডরমিটরি
  • টিচার্স কোয়ার্টার
  • স্টাফ কোয়ার্টার
  • পাওয়ার প্ল্যান্ট
  • স্পিনিং শেড
  • ডাইং শেড
  • উইভিং শেড
  • ছাত্রদের হল
  • ছাত্রীদের হল

ল্যাব সমূহ:

  • অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব
  • কটন স্পিনিং ল্যাব
  • উইভিং ল্যাব
  • টেস্টিং ল্যাব
  • ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব
  • মেকানিক্যাল ল্যাব
  • ওয়েট প্রসেসিং ল্যাব
  • নিটিং ল্যাব
  • এ্যাপারেল ল্যাব
  • ফিজিক্স ল্যাব
  • কেমিস্ট্রি ল্যাব
  • গার্মেন্টস ল্যাব

কলেজের প্রকল্পে রয়েছে:

  • ভলিবল ও বাস্কেটবল খেলার মাঠ
  • উন্নত যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য নিজস্ব বাস
  • এছাড়াও ক্যাম্পাসের সাথেই ড. ওয়াজেদ মিয়া স্যার এর নামে ‘ড.ওয়াজেদ মিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়’ রয়েছে যার প্রতিষ্ঠাকাল ২০০০ সালে।

ছাত্র সংগঠন সম্পাদনা:

  • স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “শীতলছায়া” ক্লাব
  • সাংস্কৃতিক ক্লাব ” রংতুলি “
  • ডিবেটিং ক্লাব
  • ক্যারিয়ার ক্লাব
  • ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাব
  • ফটোগ্রাফি ক্লাব
  • স্পোর্টস ক্লাব
  • জিমনেশিয়াম ক্লাবইভেন্ট
  • ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ক্লাব ইত্যাদি।

স্টুডেন্টদের খেলাধুলার জন্য কলেজের রয়েছে নিজস্ব মাঠ।তাছাড়া ইনডোর গেমস এর জন্য রয়েছে পৃথক কমন রুম।

ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং কলেজ সম্পূর্ণ রাজনীতি ও র‍্যাগিংমুক্ত একটি ক্যাম্পাস।

বর্তমানে টেক্সটাইল একটি প্রধান ও দ্রুত বর্ধনশীল খাত।আর এ ধারাটি বজায় রাখার গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব আমাদের হাতেই।তাই সকল প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে আমাদের ডমটেক পরিবার দৃঢ়প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

Writer:
Sadiya Rahman
DWMTEC
Campus Ambassador, Bunon

3 COMMENTS

  1. I used to be very pleased to seek out this internet-site.I wished to thanks in your time for this excellent read!! I undoubtedly having fun with each little bit of it and I’ve you bookmarked to check out new stuff you weblog post.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here