27 C
Dhaka
Wednesday, December 7, 2022
Home Fiber To Fabric Fiber মিল্ক ফাইবার | Milk Fiber

মিল্ক ফাইবার | Milk Fiber

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত , পরিচিত এবং পুষ্টিকর খাবার দুধ। কিন্তু আমরা কি কখনো ভাবতে পেরেছি দুধ থেকে ফাইবার ও তৈরি করা সম্ভব?

মিল্ক ফাইবার, অনেকের জন্য এটি নতুন হলেও এটি প্রথম উদ্ভাবিত হয় ইতালিতে ১৯৩০ সালে। এটি তৈরি হয় দুধের কেসিন থেকে। কেসিন হলো দুধের একপ্রকার প্রোটিন। এটি আলাদা করা হয় এসিড ব্যবহার করে।

এটি বানানোর প্রকিয়া অনেকটা রেয়ন বা ভিস্কোস(Rayon or viscose) এর মত। তবে এটি একটি রিজেনারেটেড প্রোটিন ফাইবার, রিজেনারেটেড সেলুলোজ ফাইবার নয়, তাই এটির প্রতিক্রিয়া উল(wool) ফাইবার এর মত।

মিল্ক ফাইবার এর সুবিধা:

১. এটি পরিবেশ সহায়ক।
২. এটাকে “গ্রিন প্রোডাক্ট” বলা যেতে পারে, কারন এটাতে কোন ফরমালডিহাইড থাকে না।
৩. এই ফাইবার এর পিএইচ (Ph) ৬.৮, যেটা মানুষের ত্বকের কাছাকাছি । তাই এই ফাইবার দিয়ে বানানো পণ্য মানুষের জন্য বেশি উপযুক্ত।
৪. এটি বেশি আরামপ্রদ, পানি পরিবহনযোগ্যতা এবং বাতাস প্রবেশ্যতা ভাল।

মিল্ক ফাইবার এর উৎপাদন প্রক্রিয়া:

প্রথমে দুধ থেকে কেসিন আলাদা করা হয়। কেসিন কিছুদিন পর দই হিসেবে জমাট বাধে এবং এটাকে ধোয়া ও শুকানো হয়। কেসিন কে কস্টিক সোডার দ্রবণে দ্রবীভূত করা হয়। দ্রবণটিকে অনেকক্ষন ধরে তৈরি করা হয় যতক্ষন না পর্যন্ত উপযুক্ত সান্দ্রতা প্রাপ্ত না হয়। এরপর এটাকে পরিস্রাবিত করা হয়।

স্পিনিং দ্রবণটি সালফিউরিক অ্যাসিড (২ অংশ), ফর্মালডিহাইড (৫ অংশ), গ্লুকোজ (২০ অংশ) এবং জল (১০০ অংশ) সমন্বিত একটি বাথের মধ্যে স্পিনিরেটসের মাধ্যমে এক্সট্রুশন করা হয়। ভিস্কোসের ফিলামেন্ট যেভাবে জমাট বাধানো হয়, একইভাবে এটাও জমাট বাধানো হয়।

পরবর্তী পদ্ধতিতে ফাইবার কে রাসায়নিক ভাবে প্রভাবিত করা হয় এবং টুইস্ট দেওয়া হয়। এই পদ্ধতিকে ” হার্ডেনিং ” বলে।

এরপর ফিলামেন্টকে পুনঃবিন্যাস করা হয়। আফটারট্রিটমেন্ট (After treatment) করা হয়, ধোয়া ও শুকানো হয়, মেশিনের সাহায্য ক্রিম্প( crimp) দেয়া হয়। শেষে স্টাপল (Staple) ফাইবার হিসেবে কাটা হয় অথবা উলের সাথে ব্লেন্ডিং এর জন্য প্রসেস করা হয়।

স্টাপল ফাইবার:

মিল্ক ফাইবার আন্তর্জাতিক পরিবেশগত টেক্সটাইলগুলির জন্য ওকো-টেক্সট স্ট্যান্ডার্ড ১০০ গ্রীণ সার্টিফিকেট পেয়েছে।

মিল্ক ফাইবার এ আঠারোটি অ্যামিনো অ্যাসিড রয়েছে যা মানুষের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী এবং ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য সহায়ক। মিল্ক ফাইবার টেকশই এবং ব্যাক্টেরিয়া রোধী হয়, কেননা এই ফাইবার এ একটি বিশেষ স্পিনিং সলভেন্ট, মাইক্রো জিংক আয়ন ব্যবহৃত হয়। এটি স্টাপল (staple), টো ( Tow) আকারে উৎপাদিত হয়।

মিল্ক ফাইবারের ব্যবহার:

১. টি-শার্ট
২. আন্ডার গার্মেন্টস
৩. লেডিস আউটারওয়ার
৪. স্পোর্টস ওয়ার
৫. সোয়েটার

মিল্ক ফাইবারের কিছু অসুবিধা:

১. এটি দ্বারা তৈরি কাপড় ধোয়ার পর ভাজ পরে যায় এবং প্রতিদিন ইস্ত্রী করতে হয়
২. এটি মেশিনে ধোয়া উচিৎ নয়, কেননা এটি বেশি শক্ত হয় না
৩. এটি কিছুটা ব্যায়বহুল
৪. এটির স্থায়িত্ব কম

মিল্ক ফাইবারের ব্লেন্ডিং:

নিম্মোক্ত পদ্ধতিতে মিল্ক ফাইবারের ব্লেন্ডিং করা হয়:

১. কটন(cotton) পদ্ধতি: ভিস্কোস এবং কেসিন(মিল্ক ফাইবার) ব্লেন্ড।
২. উলেন(woolen) পদ্ধতি: কেসিন এবং উল ব্লেন্ড।
৩. ওরস্টেড (worsted) পদ্ধতি: কেসিন এবং উল অথবা ভিস্কোস ব্লেন্ড।
৪. ফ্লাস্ক (flax) পদ্ধতি : কেসিন এবং ভিস্কোস।

মিল্ক প্রোটিন ফাইবার এর যত্ন :

মিল্ক প্রোটিন ফাইবার এর ফিজিকাল এবং ক্যামিকাল গঠন পদ্ধতি প্রাকৃতিক প্রোটিন ফাইবার থেকে আলাদা।তাই, নিম্মলিখিত উপায়ে যত্ন নেওয়া হয়:
১. ডিসাইজিং(Desizing): এনজাইম পণ্যগুলি পিএইচ ৪ থেকে ৬ এর মধ্য ব্যবহার করা যেতে পারে।
২. স্কাউরিং( Scouring): সিন্থেটিক ডিটারজেন্ট ব্যাবহার করলে পিএইচ ৬ এর মধ্য রাখতে হবে।
৩. ব্লিচিং ( Bleaching): মিল্ক বা কেসিন ফাইবার সাধারণত সাদা হয়, তাই ব্লিচিং এর তেমন প্রয়োজন হয় না। যদি ব্লিচিং দরকার হয় তাহলে সোডিয়াম পাইরোফসফেট ব্যবহার করে পিএইচ ৮ এ হাইড্রোজেন পারক্সাইড – দিয়ে ব্লিচিং করা যেতে পারে।
৪. ডায়িং ( Dyeing): এসিড, ব্যাসিক, ডিরেক্ট এবং ডিসপার্স ডাই ব্যবহার করা যাবে। ডাই লিকার এর পিএইচ ৪-৬ এবং ডায়িং তাপমাত্রা ৯০-৯৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকতে হবে।
৫. প্রিন্টিং ( Printing): ব্লক, স্ক্রিণ এবং রোলার প্রিন্টিং ব্যবহার করা যেতে পারে। এসিড, ব্যাসিক, ডিরেক্ট, অ্যাজয়িক পিগমেন্ট ডাই ব্যবহার করা যাবে।

মিল্ক ফাইবারের ম্যানুফ্যাকচারার বা উৎপাদক :

১. সায়ার্ন টেক্সটাইল কো. লিমিটেড ( Cyarn Textile co. ltd.)
২. ফ্যাবম্যান ফেব্রিক্স এন্ড ম্যানুফ্যাকচার ( Fabric Fabrics and Manufacture)
৩. ইউরোফ্লাক্স ইন্ডাস্ট্রিস ( Euroflax Industries)
৪. চায়না এক্সএইচ মার্ট টেক্সটাইল কো. লিমিটেড ( China Xhmart textile co. ltd)

Writer:
Md. Zamil Mia
STEC
Campus Ambassador, Bunon

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

গত রবিবার (২৭ নভেম্বর, ২০২২) শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের অডিটরিয়ামে নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময়...

সম্পূর্ণ হলো নিটারের এফডিএই ডিপার্টমেন্টের ফাইনাল ড্রেস সাবমিশন

সাভারে অবস্থিত ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড রিসার্চ নিটারে ফ্যাশন ডিজাইন অ্যান্ড অ্যাপারেল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদের ফাইনাল ড্রেস সাবমিশন...

নিটারে নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

ঢাকার নিকটস্থ সাভারের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড রিসার্চ (নিটার) এর বিএসসি ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে টেক্সটাইল ক্লাব উদ্বোধনী এবং নবীন বরন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

গত ২রা নভেম্বর প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় টেক্সটাইল ক্লাবের আয়োজনে টেক্সটাইল ক্লাব উদ্বোধনী এবং নবীন বরন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত...

পোশাক যখন ক্যানভাস

আদিযুগ থেকে পোশাকের প্রচলন চলে আসছে যুগের পর যুগ, শতাব্দীর পর শতাব্দী। পোশাক অলংকরণের ইতিহাসও সেই প্রাচীন।

চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশন এর জমকালো মিটআপের আয়োজন

গত ১৬ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে ঢাকা, আশুলিয়াস্থ তুরাগ রিক্রিয়েশন ওয়ার্ল্ডে চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সংগঠন চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ...

রপ্তানিতে ওভেন খাতে আধিপত্য হারাচ্ছে

ওভেন পোশাকের রফতানি আয় কমছে। সে তুলনায় কিছুটা ভালো অবস্থানে রয়েছে নিট পোশাক। উদ্যোক্তারা বলছেন, দেশি কাঁচামালের জোগানের কারণে রফতানি বাজারে...