আমাদের বস্ত্রশিল্পের সর্বোচ্চ ব্যবহৃত কাচামাল হচ্ছে কটন যা ইন্ডিয়া, মিশর, তুরস্ক, চীন, কিরগিজস্থান, আমেরিকার সহ বিভিন্ন দেশে উৎপাদিত হয়ে থাকে। কটন ফাইবার দিয়ে প্রস্তুতকৃত পোশাক টেকসই এবং আরামদায়ক তাই পোশাকের বাজারে কটন ফেব্রিকের চাহিদা সর্বদা প্রথম সারিতে অবস্থান করে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য এই যে বেশিরভাগ কটন ফাইবার উৎপাদনের সময়ে অবাঞ্চিত রাসায়নিক সার এবং অনিয়ন্ত্রিত পদ্ধতি অনুসরণ করা হয় যার ফলে সেসকল কটন উৎপাদনের সাথে জড়িত কৃষক থেকে শুরু করে পন্য ব্যবহারকারী সকলকে একটি স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্মুখীন হতে হয়। এছাড়াও প্রথাগত এই কটন চাষ প্রনালী পরিবেশে বর্ণনাতীত ক্ষতি সাধন করছে।কটন যেসব এলাকায় চাষ হয় সেসব এলাকার জমি অধিক শুষ্ক হয়ে পড়ে, কেননা তুলার গাছ প্রচুর পানি শোষণ করে।তাই এই সকল সমস্যা মোকাবিলায় এবং পরিবেশ সহ সকলের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনা করে অর্গানিক কটন চাষ প্রনালী বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অর্গানিক কটনঃ


অর্গানিক কটন হচ্ছে সেসকল কটন যা চাষ করার সময় জমিতে শুধুমাত্র পরিবেশবান্ধব জৈব সার,কীটনাশক প্রয়োগ করা হয়, জেনেটিক্যাল মডিফাইড (GM) বীজ বর্জন করা হয় এবং পরিবেশের স্বাভাবিক প্রকিয়ায় বেড়ে ওঠে এছাড়াও Global Organic Textile Standard- GOTS এর সকল নিয়ম-কানুন মেনে এই অর্গানিক কটন থেকে শুরু করে অর্গানিক পোশাক উৎপাদন করা হয়ে থাকে।

কৃষি খাতে পুরো পৃথিবীতে যত পানি ব্যবহার হয় তার ৩% এই কটন চাষে ব্যায় হয়।অর্গানিক কটন চাষ করতে সাধারণ কটন এর থেকে ৯১℅ কম পানি ব্যয় হয় কেননা অর্গানিক পদ্ধতিতে কটন চাষ করলে মাটি অনেকটা স্পঞ্জের মত বৈশিষ্ট প্রদর্শন করে। যখন ভুমি পানি পায় তখন স্পঞ্জের মত কিছু পানি সংরক্ষণ করে রাখে এতে করে খরার সময় কটন গাছের পানি সংকট পড়েনা এছাড়াও পুরো পৃথিবীর প্রায় ১৪% কীটনাশক শুধুমাত্র কটন চাষে প্রয়োগ হয় সেগুলোর বিষক্রিয়ায় ক্যান্সার, স্নায়ুতাত্ত্বিক রোগ এবং বন্ধ্যাত্ব রোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে এছাড়াও অর্গানিক কটন সাধারণ কটনের থেকে ৪৬% কম গ্রীনহাউজ গ্যাস নির্গত করে।

অর্গানিক পদ্ধতিতে কটন চাষ করার ভালো একটি প্রক্রিয়া হচ্ছে এক বছর অন্তর অন্তর জমিতে কটন চাষ করা এবং এই অন্তবর্তীকালিন বছর গুলোতে এমন ধরনের ফসল চাষ করা হয় সেগুলো বাতাসের থেকে নাইট্রোজেন সংগ্রহ করে জমির ক্ষয়পূরন করতে পারে। সম্পূর্ণ Non-GM বীজ ব্যবহার হয় এবং জৈব সার, পরিবেশ বান্ধব কীটনাশক প্রয়োগ করার সাথে নিয়মিত আগাছা পরিষ্কার করা হয়ে থাকে। এ অর্গানিক পদ্ধতিতে পরিবেশের জলবায়ু এবং বায়োলজিকাল সাইকেল নিশ্চিত করে চাষ প্রনালী নির্ধারণ করা হয়ে থাকে, যাতে করে একটি সাসটেইনেবল প্রডাকশন নিশ্চিত করা যায়।

Fig: Organic Cotton

অর্গানিক কটন চেনার জন্য উপায়ঃ

GOTS label: এই লেভেল থাকলে বুঝতে হবে যে সেই পন্যে কমপক্ষে ৭০% অর্গানিক কটন রয়েছে এবং কটন চাষ থেকে শুরু করে পোশাক বানানো পর্যন্ত সম্পূর্ণ প্রক্রিয়ায় কোনো ক্ষতিকর রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়নি।

OCS label: এই লেভেল থাকলে বুঝতে হবে যে সেই পন্যের কটন অর্গানিক পদ্ধতিতে চাষ করা হয়েছে এবং পন্যের মধ্যে অর্গানিক ফাইবার থাকবে কিন্তু সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া অর্গানিক স্টান্ডার্ড অনুসরণ করেছে কিনা তা এই লেভেল নিশ্চিত করেনা।

Fairtrade label: এই লেভেল থাকলে বুঝতে হবে অর্গানিক কটন চাষের সাথে জড়িত সকল শ্রমিক নায্য পারিশ্রমিক পেয়েছে।

যেসকল টেক্সটাইল কটন পন্যে GOTS label/OCS label এর সাথে Fairtrade label সংযুক্ত থাকে সেসকল টেক্সটাইল পন্য আদর্শ অর্গানিক কটন পন্য।

ইন্ডিয়া অর্গানিক কটন উৎপাদনের দিক থেকে এগিয়ে আছে, সমগ্র বিশ্বের ৫১ ভাগ অর্গানিক কটন ইন্ডিয়াতে উৎপাদিত হয়ে থাকে। এছাড়াও চীন ১৯ ভাগ, তুর্কী ৭ ভাগ এবং কিরগিজস্থান ৭ ভাগ সহ আরো অনেক অর্গানিক কটন চাষে করে যাচ্ছে।

Fig: OCS logo
Fig: GOTS logo

GOTS সার্টিফাইড অর্গানিক কটন প্রোডাক্ট বিক্রয়কারী কিছু প্রতিষ্ঠান হলোঃ

  • Walmart
  • Prana
  • Afends
  • Dakota
  • Advance Denim
  • Asiaway Garment
  • Mochni
  • Patagonia
  • Fair Indigo
  • Synergy
  • Bibico
  • Lanius
  • Nomads
  • Komodo
  • Pact, etc.

আমাদের সকলেরই পরিবেশ এবং প্রকৃতির প্রতি একটি দায়বদ্ধতা থাকে, সেই দায়বদ্ধতার প্রেক্ষিতে পরিবেশ বাচানোর জন্য এবং প্রকৃতি সুন্দর রাখার প্রয়াস হিসেবে অর্গানিক কটনের পোশাক ব্যবহার বৃদ্ধি করতে হবে। 

Writer: Wayaze Ahmad Ripon

Chief Campus Coordinator, Bunon

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here