27 C
Dhaka
Thursday, December 9, 2021
Home News & Analysis একজন ইংরেজ(স্যামুয়েল স্লেটার) কীভাবে টেক্সটাইল শিল্পে বিপ্লব ঘটিয়েছিল | How an Englishman...

একজন ইংরেজ(স্যামুয়েল স্লেটার) কীভাবে টেক্সটাইল শিল্পে বিপ্লব ঘটিয়েছিল | How an Englishman (Samuel Slater) Revolutionized the Textile Industry

স্যামুয়েল স্লেটার একজন আমেরিকান উদ্ভাবক যিনি ১৭৬৮ সালের ৯ জুন জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি নিউ ইংল্যান্ডে রোড আইল্যান্ডের স্ল্যাটারসভিলে শহরে বেশ কয়েকটি সফল স্পিনিং মিল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তাঁর কৃতিত্ব এর কারনে অনেকে তাকে “আমেরিকান শিল্পের জনক” এবং “আমেরিকান শিল্প বিপ্লবের প্রতিষ্ঠাতা” হিসাবে বিবেচনা করে।

জন্ম সাল – ৯ জুন, ১৭৬৮ বেলপার, ডার্বিশায়ার, ইংল্যান্ড

মৃত্যু সাল – ২১ এপ্রিল, ১৮৩৫ (বয়স ৬৬)

জাতীয়তা – ইংরেজ

পেশা – শিল্পপতি, লেখক

পরিচিতি আছে – গ্রেট ব্রিটেন থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শিল্প বিপ্লব নিয়ে আসা

নেট মূল্য – তাঁর মৃত্যুর সময় মার্কিন ডলার $১.৩ মিলিয়ন (মার্কিন জিএনপি-র প্রায় ১/১৩১২ তম)

স্ত্রী – হান্না উইলকিনসন স্লেটার (১৭৯১ – তার মৃত্যু, ১৮১২); এস্থার পার্কিনসন (1817 – তাঁর মৃত্যু)

তার আমেরিকায় প্রত্যাবর্তনঃ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম বছরগুলিতে, বেনিয়ামিন ফ্র্যাঙ্কলিন এবং পেনসিলভেনিয়া সোসাইটি ফর এনকারেজমেন্ট অফ ম্যানুফেকচারার উপকারী যে কোনো আবিষ্কারের জন্য নগদ পুরষ্কার প্রদান করতো যা আমেরিকার টেক্সটাইল শিল্পকে উন্নত করে তোলে। সেই সময় স্লেটার ছিলেন ইংল্যান্ডের মিলফোর্ডের এক যুবক, তিনি শুনেছিলেন যে উদ্ভাবক প্রতিভা আমেরিকাতে পুরস্কৃত হয় তাই তিনি সে সময় দেশত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। মাত্র ১৪ বছর বয়সে, তিনি ছিলেন রিচার্ড আর্করাইটের অংশীদার জেদীদাহ স্ট্রটের শিক্ষানবিশ বা ইন্টার্ন ছিলেন এবং কাউন্টিং হাউস এবং টেক্সটাইল মিলে কর্মরত ছিলেন। সেখানে তিনি টেক্সটাইল ব্যবসায় সম্পর্কে অনেক কিছু শিখেছিলেন।

স্লেটার আমেরিকাতে ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য টেক্সটাইল শ্রমিকদের দেশত্যাগের বিরুদ্ধে যে ব্রিটিশ আইন ছিলো তা তিনি অমান্য করেছিলেন এবং তিনি ১৭৮৯ সালে নিউইয়র্ক পৌঁছেছিলেন এবং টেক্সটাইল বিশেষজ্ঞ হিসাবে তার সুবিধা দেওয়ার জন্য Pawtucket এর মোশি ব্রাউনকে লিখেছিলেন। ব্রাউন প্রোভাইডের একজনের কাছ থেকে যে স্পিন্ডেলগুলি কিনেছিলেন তা চালাতে পারবেন কিনা তা দেখার জন্য স্লটারকে পাভটকেটে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। ব্রাউন তাকে উত্তরে লিখেছিলেন , “আপনি যা বলছেন তা করতে পারলে,” আমি আপনাকে রোড আইল্যান্ডে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি । “

১৭৯০ সালে Pawtucket পৌঁছে স্লেটার মেশিনগুলিকে অকেজো ঘোষণা করে। অ্যালমি এবং ব্রাউনকে বোঝায় যে তিনি টেক্সটাইলের ব্যবসায়ের জ্ঞান আছে তাই তাদের অংশীদার হিসেবে চান। ইংরেজী টেক্সটাইল যন্ত্রপাতিগুলির অঙ্কন বা মডেল ছাড়াই তিনি নিজেই মেশিন তৈরি করতে উদ্যোগ নেন। ২০ ডিসেম্বর, ১৭৯০ সালে, স্লেটার নিজে কার্ডিং মেশিন , ড্রফ্রেম, রোভিং ফ্রেম মেশিন এবং দুটি ৭২ স্পিন্ডল বিশিষ্ট স্পিনিং ফ্রেম তৈরি করেছিলেন। একটি পুরানো কল থেকে নেওয়া হয়েছিলো ওয়াটার ফ্রেম যা ব্যাবহার করা হয়েছিলো পাওয়ার সাপ্লাইয়ের জন্য। দেখা গেলো স্লেটারের নতুন যন্ত্রপাতি কাজ করেছে এবং খুব ভালো কাজ করেছে।

স্পিনিং মিল এবং টেক্সটাইল বিপ্লবঃ

এটিই ছিল প্রথম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্পিনিং ইন্ডাস্ট্রির জন্ম। “ওল্ড ফ্যাক্টরি” নামে নতুন টেক্সটাইল মিলটি ১৭৯৩ সালে Pawtucket এ নির্মিত হয়েছিল। এর পাঁচ বছর পরে, স্লেটার এবং ব্যাবসায়ীক পার্টনারেরা দ্বিতীয় মিল তৈরি করেছিলেন এবং ১৮০৬ সালে, স্লেটার তার ভাইয়ের সাথে যোগদানের পরে, তিনি আরেকটি মিল নির্মাণ করেছিলেন।

অনেক কর্মীরা স্লেটারের কাছে কাজ করতে এসেছিল এবং তারা তার যন্ত্রগুলি সম্পর্কে সম্পূর্ণরূপে জানার অপেক্ষায় ছিলো এবং কাজ শেখার পর তারা নিজেদের টেক্সটাইল মিলগুলি স্থাপন করতে তাকে ছেড়ে চলে যায়। মিলগুলি কেবল নিউ ইংল্যান্ডে নয় অন্যান্য রাজ্যেও নির্মিত হয়েছিল। ১৮০৯ সালের মধ্যে দেশে ৬২ টি স্পিনিং মিল চালু বা অপারেশনাল ছিল, একত্রিশ হাজার স্পিন্ডল এবং আরও পঁচিশটি মিলগুলি ইরেকশন এবং প্লানিং পাইপলাইনে ছিলো। শীঘ্রই শিল্পটি যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।

প্রথমে গৃহস্থালীর ব্যবহারের গৃহীনীদের কাছে বিক্রি করা হতো সেখান থেকে পেশাদার তাঁতিদের কাছে বিক্রি শুরু হয় যারা মার্কেটে ফেব্রিক বিক্রি করার জন্য কাপড় তৈরি করেছিল। তারপর এই শিল্প বছরের পর বছর ধরে চলতে থাকে। কেবল নিউ ইংল্যান্ডেই নয়, দেশের অন্যান্য অংশেও স্পিনিং যন্ত্রপাতি চালু হয়েছিল।

১৭৯১ সালে, স্লেটার হান্না উইলকিনসনকে বিবাহ করেন, যিনি দ্বি-প্লাইয়ের সুতো আবিষ্কার করার প্রথম আমেরিকান মহিলা হিসেবে আবিস্কারের পেটেন্ট গ্রহণ করেছিলেন । স্লেটার এবং হানাহার একসাথে ১০ সন্তান ছিল, যদিও চারটি শৈশবকালে মারা গিয়েছিলেন। ১৮১২ সালে হান্না স্লেটার প্রসবকালীন জটিলতায় মারা যান এবং ছয় ছেলেমেয়েকে নিয়ে তার স্বামীকে রেখেছিলেন। স্লেটার দ্বিতীয়বারের জন্য ১৮১৭ সালে এস্টার পার্কিনসন নামে এক বিধবাকে বিয়ে করেছিলেন।

Writer:
Mazedul Hasan Shishir
CEO, Bunon

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

” জাতীয় বস্ত্র দিবসে টেক্সটাইল বিষয়ক কুইজের আয়োজন করেছে সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাব”

৪ ডিসেম্বর জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০২১ উপলক্ষে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, জোরারগন্জ,চট্টগ্রাম (সিটেক) এর ক্যারিয়ার বিষয়ক ক্লাব "সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাব" কর্তৃক সকল...

লিখিত অনুমোদন পেয়েছে সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাবের নতুন কমিটি

টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, জোরারগন্জ, চট্টগ্রাম এর ক্যারিয়ার বিষয়ক ক্লাব " সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাব" এর ২০২১-২২ সেশানের গঠিত নতুন কমিটিকে লিখিত অনুমোদন...

চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে সপ্তাহব্যাপী অল ওভার প্রিন্টিং ওয়েবিনার সম্পন্ন : মূল্যায়ন পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর

অল ওভার প্রিন্টিং (All Over Printing) এবং ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট (Design Development) এর ওপর চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং কলেজে (সিটেক) AOPTB (All Over...

অধ্যক্ষের সাথে সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাবের নবগঠিত কমিটির সৌজন্য সাক্ষাত

চট্টগ্রাম টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ (সিটেক) এর ক্যারিয়ার বিষয়ক সংগঠন সিটেক ক্যারিয়ার ক্লাবের ২০২১-২০২২ সেশনের নবগঠিত কমিটির সাথে অত্র কলেজের সম্মানিত অধ্যক্ষ...

করোনা পরবর্তী ৫০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানী সম্ভাবনা। প্রস্তাবনা:০১-০৩

আমাদের কারখানা খুলে দেয়ার পর, অনেকেই আমরা সবচেয়ে সংকটে পড়বো ফুল ক্যাপাসিটি ইউটিলাজেশন নিয়ে। ধরুন আপনার ৯৫ টা নিটিং মেশিন আছে...

বিইউবিটিতে ফ্রেশার’স ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট, বুনন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউবিটি) এর সামার ও ফল-২০২১ ব্যাচের নতুন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন...

চারুকলার শিক্ষার্থীদের নিয়ে AOPTB-এর ভার্চুয়াল সেমিনার আয়োজন

দেশের বহুল আলোচিত এবং প্রভাবশালী ক্ষেত্র, টেক্সটাইল সেক্টরে অল ওভার প্রিন্টিং এ চারুকলার শিক্ষার্থীদের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। টেক্সটাইল সেক্টরে...