27 C
Dhaka
Wednesday, October 28, 2020
Home Campus News Bangladesh করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব এবং আমাদের এপারেল সেক্টর | Corona Virus Pendemic:Our Aparel...

করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব এবং আমাদের এপারেল সেক্টর | Corona Virus Pendemic:Our Aparel Sector

গত ২৪জুন,২০২০ ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এর টেক্সটাইল সোসাইটি আয়োজন করে এ্যাপারেল সেক্টরে অপরচুনিটি এবং স্টুডেন্টদের ক্যারিয়ার প্ল্যানিং শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠান। উক্ত আলোচনা সভার মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবঃ এপ্যারেল সেক্টরের সমসাময়িক চ্যালেন্জ ও সু্যোগ সুবিধা এবং শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ।

উক্ত সভার অতিথি হিসাব এ উপস্থিত ছিলেন :

১.সিরাজুম মুনির
এজিএম এবং হেড অব ফেব্রিক,সোর্সিং ডিপার্টমেন্ট,
এপিক গ্রুপ

২.মো.আসাদুল হক
ফেব্রিক্স মার্কেটিং ও মার্সেরাইজিং
থার্মেক্স ইয়ার্ন ডায়েড ফেব্রিক্স লিমিটেড

উক্ত সভার সভাপতিত্ব করেন
মো মোস্তাফিজুর রহমান
বিভাগীয় প্রধান টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ
ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

এই সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন এবং নির্দেশনা দেন শ্রদ্ধেয় অজয় রায়, প্রভাষক, ডিপার্টমেন্ট অব টেক্সটাইল এবং মডারেটর, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ডিবেটিং ক্লাব।

অজয় রায় স্যার এর করা প্রশ্ন বর্তমান করনা পরিস্থিতিতে এবং এই সংকট কাটিয়ে উঠার পর গার্মেন্টস সেক্টর কি কি চ্যালেন্জ এর মুখমুখি হতে পারে তার উত্তর দিয়ে গিয়ে সাম্মানিত অতিথি সিরাজুম মুনির স্যার পূর্ববর্তী, বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ টেক্সটাইল সেক্টর সম্পর্কে বিশদভাবে আলোচনা করেন।
সিরাজুম মুনির স্যার বলেন এপারেল সেক্টর নিয়ে বাংলাদেশ কে অনেক দুর নিয়ে যাবে ।কিন্তু করোনা প্রাদুর্ভাব এর কারনে বর্তমানে প্রায় সকল ইন্ডাস্ট্রি বন্ধ হয়ে আছে।যা সকল পরিকল্পনাকে ব্যার্থ করছে।
সিরাজুম মুনির স্যার আরো বলেন বর্তমান সমসাময়িক অর্থনৈতিক প্রতিবন্ধকতা ও চাকরির সুযোগ কমে যাওয়া বিষয়।

অনেকেই টেক্সটাইল সেক্টরের সীমাবদ্ধতার কারণে চাকুরী হারাচ্ছেন এবং ম্যানপাওয়াররা করোনা মহামারীতে বর্তমান বাস্তবতার সঙ্গে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সংগ্রাম করছেন যেটাকে তিনি প্রধান চ্যালেঞ্জ হিসেবে বর্ণনা করে তাদের উদ্দেশ্য তার একান্ত নীতি উৎসর্গ করেন, “চাকরির জন্য জীবন নয়, জীবনের জন্য চাকরি।
এছারা তিনি সবাইকে সুরক্ষিত থাকার অনুরোধ করেন।নিজে সুস্থ থেকে পরিবার কে সুস্থ রাখার আহবান দেন।যারা চাকরি হারিয়েছে বা হারাচ্ছেন তাদের উদ্দেশ্য বলেন বেচে থাকলে আবার চাকরি পাওয়া জাবে।তাই সকল কে সুস্থ থাকতে হবে।

চ্যালেঞ্জের বিপরীতে তিনি অপরচুনিটি ব্যাখ্যা সহ স্টুডেন্টদের ক্যারিয়ার প্লানিং কে ইন্ডাস্ট্রি রেভুলোশন ৪.০ এর মাধ্যমে ব্যখ্যা করেন।

ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ তে স্টুডেন্টদের যেসব স্কিলস অর্জন করতেই হবে:

প্রোফেশনাল ক্যারিয়ারে যেসব স্কিলস আপনাকে যোগ্য চাকুরী প্রার্থী করে তুলবে এবং আপনার অবস্থান নিশ্চিত করবে

-প্রথমেই উচ্চাকাঙ্খী না হয়ে নিজের বিষয় রিলেটে চাকরির চেষ্টা করতে বলেন।
-বর্তমান আধুনিক যুগের সাথে তাল মিলানোর জন্য ইংরেজি শিক্ষার উপর জোর দিতে বলেন
-কম্পিউটার স্কিল
-স্মার্টনেস
-রিলেভ্যান্ট হতে হবে।
-টেকনোলজি এডভান্সড হতে হবে।
-প্রোফেশনাল ইমেইল লিখতে জানতেই হবে।
-বেসিক সফটওয়্যার জানতে।
-পড়াশুনা শেষ করে নিজের ক্যারিয়ার প্লানিং থাকতে হবে অর্থাৎ আগামী ১০ বছর পর নিজেকে কোন যায়গায় দেখতে চান অন্তত এসম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা থাকতে হবে।

সফট স্কিলস:
-ডিসিশন নেয়ার ক্ষমতা
-সকলের সাথে যোগাযোগ করার ক্ষমতা
-নেটওয়ার্কিং
-কাস্টমার কে আকর্ষন করার ক্ষমতা
-টিমে লিড করার ক্ষমতা
– ভাল ব্যবহার
এরপর ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ যা খুবই ডিমান্ড করে।
আইওটি( ইন্টারনেট অব থিংস)
-সফটওয়্যার এক্সপার্ট
-কোডিং
-ডিজিটাল মার্কেটিং
-রিমোট ওয়ার্কিং
-মাল্টি টাস্কিং
-সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট
-ভ্যালু চেইন ম্যানেজমেন্ট
-সিক্স সিগমা, থ্রি আর
-সাসটেইনেবিলিটি
-লিন ম্যানুফ্যাকচারিং ইত্যাদি।

আমাদের আরেক অতিথি মো.আসাদুল হক তার বক্তব্যে টেক্সটাইল সাপ্লাই চেইনের সীমাবদ্ধতা উল্লেখ পূর্বক তার সমাধানে ইউনিভার্সিটি গুলোতে সরকারের পর্যালোচনায় রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্ট এর উপর জোর দেন, আগামীতে টেক্সটাইলের কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক অবদানের ক্ষেত্র গুলোও তুলে ধরেন সেই সাথে সরকার এবং টেক্সটাইলের মহারথীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান এছাড়াও স্টুডেন্টদের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন।
তিনি প্রত্যেক ছাত্রছাত্রি কে বর্তমান পরিস্থিতি তে ভয় না পেয়ে আত্মবিশ্বাসী হতে আহ্বান জানান।

সিরাজুম মুনির স্যার সবাইকে উদ্যেশ্য করে বলেন ” চাকরি বাচানোর চাইতে নিজের জীবন বাচানো জরুরী “।

অজয় রায় স্যার বর্তমান ইলার্নিং এর মাধ্যমে কিভাবে ক্লাস হচ্ছে এবং মডিওল এ্যপ এর বিষদ ব্যাবহার সম্পর্কে বুঝিয়ে বলেন।

সিরাজুম মুনির স্যার সকলকে অনলাইন ক্লাস সম্পর্কে উৎসাহিত করেন।
স্যার আরো বলেন “আমরা ভুল করতে করতে শিখব।তাই কাউকে পিছিয়ে আসলে চলবে না।সকল কে সব কাজে এক্টিভ থাকতে হবে।”
সকল শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার ব্যবহার সম্পর্কে শিখার পরামর্শ দেন।
তারা নিজেদের মধ্যে স্মৃতিচারণ করেন এবং
উনারা সকল শিক্ষার্থীদের মতামত ও প্রশ্ন গ্রহন করেন এবং সেই অনুযায়ী পরামর্শ দেন এবং তাদের শুভকামনা গ্রহন করেন।

এরপর মুস্তাফিজুর স্যার ও সিরাজুম মনির স্যার টেক্সটাইল সেক্টর এর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আলোকপাত করেন এবং ছাত্র ছাত্রিদের সেইভাবে তৈরি হতে আহ্বান জানান।

অবশেষে, প্রোগ্রামে আলোচিত প্রতিটি শব্দ উপস্থিত সবার কাছে বিশেষ করে করে স্টুডেন্টদের কাছে রত্ন হিসেবে গৃহীত হয়েছে এবং প্রোগ্রামটি অত্যন্ত সফল হয়েছে।
এরপর তিনি বর্তমান পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে টিকে থাকার লড়াইয়ে কি কি চ্যালেঞ্জ এর মুখোমুখি হতে হবে তার কথা বলেন।

Reporter:
Sumaiya Jaman Chaity & A.Rouf Ahmmad
World University Of Bangladesh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

নিটারের শিক্ষার্থীদের নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ জয়

টানা ষষ্ঠবারের মতো বেসিসের তত্ত্বাবধানে এবং বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের সহায়তায় যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা নাসার উদ্যোগে আঞ্চলিক পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেছে...

লিভিং অর্গানিজম থেকে টেকসই টেক্সটাইলের উদ্ভাবন: পরিবেশ বান্ধব টেক্সটাইলের দিকে অগ্রযাত্রা

টেক্সটাইল শিল্প হল ভোক্তা পণ্য উৎপাদনের বিশ্বের প্রাচীনতম শাখা। এটি একটি বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং বৈষম্যময় সেক্টর যেখানে প্রাকৃতিক ও রাসায়নিক ফাইবার (যেমন:...

করোনা প্রতিরোধে গাঁজার মাস্ক!

পরিবেশ দূষণের জন্য বিশ্বজোড়া আন্দোলন চলছে। তবুও পরিবেশ রক্ষায় মানুষ এখনও অনেকটাই সচেতন নয়। এতদিন মানুষই পরিবেশের ক্ষতি করতেন। এবার সেখানেও...

ডুয়েটে মাইক্রোসফট এক্সেল বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,গাজীপুরের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের "ডুয়েট টেক্সটাইল ক্যারিয়ার এন্ড রিসার্চ ক্লাব ( DTCRC) "শিক্ষার্থীদের সফটস্কিল ডেভেলপমেন্টের লক্ষে মাইক্রোসফট...

শুরু হতে যাচ্ছে WUBDC এর বিতর্কের দ্বিতীয় অনলাইন গ্রুমিং সেশন | The second online grooming session of the debate is going to start at...

গত ৩১শে মে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ডিবেটিং ক্লাব (WUBDC) এর উদ্যোগে আয়োজিত পূর্ববর্তী অনলাইন ডিবেট গ্রুমিং সেশনের সাফল্যের পর আবারও...

সাপের ত্বক বা স্নেকস্কিনের তৈরি প্রোডাক্ট

সাপের ত্বকের বা স্নেকস্কিনের তৈরিকৃত পোশাক একটি ক্লাসিক ফ্যাশন আইটেম। বিলাসবহুল স্টোর এবং বিশ্বের ফ্যাশন রাজধানীতে ক্যাটওয়াকগুলিতে সাধারণ প্রদর্শিত হয়ে থাকে।...

পলিয়েস্টার(Polyester) পরিচিতি

পলিয়েস্টার হচ্ছে একটি সিনথেটিক ফাইবার। এর নির্দিষ্ট কিছু উপাদান রয়েছে, যার মধ্যে ৮৫% এস্টারের মিশ্রনযুক্ত পলিমারের দীর্ঘ চেইন এবং ডাইহাইড্রিক অ্যালকোহল এবং...