28 C
Dhaka
Monday, September 27, 2021
Home News & Analysis শাশা ডেনিম লিমিটেড ফ্যক্ট্ররি রিভিউ | Industry Review of Shasha Denim Limited.

শাশা ডেনিম লিমিটেড ফ্যক্ট্ররি রিভিউ | Industry Review of Shasha Denim Limited.

SHASHA বাংলাদেশের অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠান কেননা এই ডেনিম মিল বাংলাদেশে ডেনিম ফেব্রিক সেক্টরে Backward Linkage এর জন্ম দিয়েছে। SHASHA এর পরে প্রতিষ্ঠিত প্রায় সকল মিলগুলো SHASHA থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং তাদের যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তির দেখে অন্য মিলগুলো প্রতিষ্ঠিত হতে থাকে যার নেতৃত্বে ছিল SHASHA.

SHASHA ডেনিম এর প্রতিষ্ঠাকাল ও ইতিহাসঃ

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড সবুজ এবং টেকসই ডেনিম উৎপাদন শিল্পে বিশ্বমানের ডেনিম তৈরি করার দৃষ্টি নিয়ে একটি পারিবারিক মালিকানাধীন সংস্থা হিসাবে যাত্রা শুরু করেছিল। তারা এখন বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ১০০% রপ্তানি ভিত্তিক ডেনিম প্রস্তুতকারক হিসাবে পরিচিত।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড ১৯৯৬ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে ২০০০ সালে এসে বাণিজ্যিকভাবে ডেনিম উৎপাদন শুরু করে। এটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, যার বাবা সিরাজুল ইসলাম মাহমুদ ১৯৫০ সালে চট্টগ্রামে তাদের পরিবারের প্রথম টেক্সটাইল ইউনিট স্থাপন করেছিলেন, যার নাম ছিল এশিয়াটিক কটন মিলস লিমিটেড। SHASHA ডেনিমস লিমিটেড প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পরে এটি ছিল সেই সময়ে বিশ্বের সর্বাধিক আধুনিক ডেনিম মিল এবং নাইট্রোজেন ফিক্সেশন স্ল্যাশার প্রযুক্তি প্রবর্তনের জন্য প্রথম ডেনিম মিল।

সেই সময় থেকেই তারা তাদের উৎপাদন প্রক্রিয়াতে অবিরত গ্রাউন্ডব্রেকিং প্রযুক্তির সাথে শ্রদ্ধাশীল সনাতন পদ্ধতির সম্মিলিতভাবে একটি সমন্বয় তৈরি করে যে ফাইবারগুলোর সাথে কাজ শুরু করে যা বছরের পর বছর ধরে সংস্থাকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে আসছে। ২০০৩ সালের ১৮ ই সেপ্টেম্বর SHASHA টেক্সটাইল লিমিটেডের কর্পোরেশন ইউনিট প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৮ সালের ২৮ ডিসেম্বর এনার্জিস পাওয়ার কর্পোরেশন লিমিটেডের অন্তর্ভুক্তি করা হয়।২০০৯ সালের ২০ শে এপ্রিল ইপিসিএল পাবলিক লিমিটেড সংস্থায় রূপান্তর হয়। SHASHA ২০১৪ সালের ০৫ নভেম্বর আইপিও-র জন্য বিএসইসির অনুমোদন সনদ লাভ করে। SHASHA ডেনিমস ২০১৫ অবধি একটি পরিবারের মালিকানাধীন ব্যবসায় ছিল, তবে ২০১৫ সালের ১৭ই জানুয়ারী তারা ঢাকা এবং চট্টগ্রামের স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হয়েছে।

অর্থবছর ২০১১-২০১২ এবং ২০১২-২০১৩ এর জন্য ২০১৬ সালের ২৮ই আগস্ট জাতীয় রপ্তানিতে ট্রফি স্বর্ণ পদক পেয়েছেন।

এমনকি ২০১৭ সালের ২রা জানুয়ারি ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে কর্পোরেট প্রশাসনের স্বীকৃতি স্বরুপ জাতীয় রপ্তানিতে ট্রফি স্বর্ণ পদক পেয়েছেন।

২০১৮ সালের ২৪ই ফেব্রুয়ারি ইওএস টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের ৪০% শেয়ার অধিগ্রহণের জন্য SHASHA ডেনিমস লিমিটেড এবং ইওএস টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা হয়।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেডকে বাংলাদেশ সরকার বহু বছর ধরে রপ্তানিতে সর্বোচ্চ সংখ্যক স্বর্ণের ট্রফি প্রদান করে আসছে।

Managing Director Of SHASHA DENIM LTD
বর্তমানে SHASHA DENIM LTD এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর শামস মাহমুদ যিনি ২০০৮ সালে এই ব্যবসায় যোগদান করেন এবং ২০১২ সালে হার্টফোর্ডশায়ার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে ডিগ্রি নিয়ে বিদেশ থেকে ফিরে আসার পরে SHASHA ডেনিমস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিযুক্ত হন।

তিনি নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটি অফ ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস অ্যান্ড ফিনান্সে এক্সিকিউটিভ কোর্সও শেষ করেছেন। তিনি SHASHA ডেনিমস লিমিটেডের পাশাপাশি বাংলাদেশে ও ইথিওপিয়ার অনারারি কনসাল, এবং বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন, ডাচ বাংলা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালনা পর্ষদ এবং বাংলাদেশ ফিলিপাইন চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সদস্য এর পাশাপাশি তিনি ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির দেশীয় প্রতিযোগিতা সম্পর্কিত এফডিআই, ব্র্যান্ডিং, বিগ বি, ব্লু ইকোনমি এর স্থায়ী কমিটির আহ্বায়ক।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড এর Sustainability:
প্রতিষ্ঠার পর থেকেই SHASHA ডেনিমস লিমিটেড তাদের ব্যবসার জন্য Sustainability সম্পর্কে অত্যন্ত সচেতন ছিল। এসডিএল সবুজ ব্যবসায়িক ক্রিয়াকলাপের প্রতিটি ক্ষেত্রে পরিবেশ সম্পর্কিত আইন ও নিয়মকানুন কঠোরভাবে মেনে চলে।

ব্লু ইজ দ্য নিউ গ্রিন
ডেভিড অ্যাটেনবরো এর কাছে মতে প্রাকৃতিক বিশ্ব, চাক্ষুষ সৌন্দর্য এবং বৌদ্ধিক আগ্রহ উত্তেজনার সর্বাধিক উৎস। এটি জীবনের এত বড় উৎস যা জীবনকে মূল্যবান করে তোলে।
SHASHA বিস্তৃত গবেষণার মাধ্যমে “নীল হল নতুন সবুজ” এর পথিকৃৎ, যেখানে ডেনিম তৈরির প্রক্রিয়াটির প্রতিটি স্তরে, তারা তাদের ক্রিয়াকলাপ প্রকৃতির উপর প্রত্যক্ষ এবং অপ্রত্যক্ষ প্রভাবের বিষয়ে চিন্তা করি। জৈব সুতা, পুনরায় ব্যবহৃত তুলা এবং টেনসেলের মতো পরিবেশ বান্ধব কাপড় ব্যবহারের চেয়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে তাদের রাসায়নিক চিকিৎসা পদ্ধতি গার্মেন্টস উৎপাদনে এক যুগান্তকারী উদাহরণ।
ঐতিহ্যবাহী ডেনিম ফেব্রিক প্ল্যান্ট এবং কারখানাগুলতে ডেনিম উৎপাদন করার মাধ্যমে একটি উল্লেখযোগ্য শতাংশ পানি হারিয়ে গেছে যা এখনও তাদের পণ্য বজায় রাখার জন্য পুরানো সরঞ্জাম এবং পদ্ধতির উপর নির্ভর করে। SHASHA-তে, তারা পানি দূষনের পরিমান প্রায় ৬০ – ৮০% হ্রাস করেছে।
নীল একটি বিরলতা। প্রকৃতিতে, এটি এমন একটি রঙ হিসাবে বিবেচিত যা খুব কমই জৈবিকভাবে গঠিত হয় এবং এর প্রাচুর্যের অংশটি সবুজ। রঙ জীবনের খুব বড় উৎস এবং প্রকৃতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। মনুষ্য ভোগবাদ নিয়ে চর্চা করার সময়, নীল তাদের প্রয়োজন। লোকেরা কীভাবে “নীল” কে নতুন “সবুজ” রূপে দেখে এবং ব্যবহার করে তা রূপান্তর করতে তারা একটি সাহসী পদক্ষেপ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
SHASHA বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন স্তরে তাদের কর্মচারী, কর্মী এবং স্টেকহোল্ডারদের সাথে প্রতিদিন কাজ করে যাচ্ছে যাতে ডেনিমের সর্বোচ্চ মানের সরবরাহের জন্য বাংলাদেশের একজন ডেনিম নির্মাতা কীভাবে সবুজ, আরও টেকসই এবং আরো দক্ষ হওয়ার জন্য বিশ্বব্যাপী চ্যালেঞ্জ নিচ্ছেন।
SHASHA ডেনিমস এর টেকসই উৎসের মধ্যে রয়েছে:

১।বিসিআই কটন

২।পুনর্ব্যবহৃত কটন

৩।জৈব সুতা

৪।পুনর্ব্যবহারযোগ্য Tencel

SHASHA কেবল জিওটিএস এর প্রশংসাপত্রযুক্ত কেমিক্যাল এবং রঞ্জক ব্যবহার করেন।

SHASHA ডেনিমে পুনর্ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক এর ব্যবহারঃ
প্রতি বছর কয়েক মিলিয়ন টন প্লাস্টিক মহাসাগরে প্রবেশ করে, সামুদ্রিক জীবন এবং পানির সূক্ষ্ম ভারসাম্যকে ক্ষতি করে। নিয়মিত ডেনিম উৎপাদন প্রক্রিয়াগুলোতে প্রচুর পরিমাণে পানি ব্যবহার করা হয় এবং এতে অনেক পানি দূষিত ও হচ্ছে।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড তাদের ব্যবহৃত যুগান্তকারী প্রযুক্তির মাধ্যনে সমুদ্রের প্লাস্টিকটিকে ভেঙে ফেব্রিকের সাথে মিশ্রিত করে একটি ডেনিম পণ্য তৈরি শুরু করেছে। এই উদ্ভাবনী পুনর্ব্যবহারযোগ্য পদ্ধতিটি যেমন পরিবেশকে রক্ষা করছে তেমন ডেনিম উৎপাদনে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

হ্যান্ডলুম রিসাইকেল
উৎপাদন করার পর ডেনিমের অবশিষ্টাংশগুলো উদ্ধার করা হয় এবং স্থানীয় সম্প্রদায়ের সহায়তায় একচেটিয়া পণ্যগুলোতে পুনর্নির্মাণ করা হয়। SHASHA তাদের সিএসআর প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে যা সত্যই অনন্য পণ্যের জন্য একটি টেকসই উদ্যোগে পরিণত হয়েছে, হ্যান্ডলুম ডেনিম গল্পটি শুরু হয় তাদের সাধারণ উৎপাদন শেষে।ডেনিম স্ক্র্যাপগুলো নেওয়া হয় এবং তা আবার ফাইবারে বিভক্ত হয় এবং তারপরে আন্তর্জাতিক বাজারের একটি পরিসরের জন্য পোশাক তৈরি করা হয়। স্থানীয় সম্প্রদায়ের হস্তশিল্প এবং কারিগরগণ বিশ্বের সাথে ভাগ করে নেওয়ার জন্য টেকসই এবং সম্পদশালী কিছু তৈরি করতে তাদের দক্ষতা এবং পরিচয়ের ছোঁয়া ব্যবহার করে।

SHASHA ডেনিমস এর Friendly Denim Wash পদ্ধতিঃ
SHASHA এর ডেনিমটি বিশেষত ধোয়া প্রক্রিয়া চলাকালীন কম কঠোর এবং ক্ষতিকারক রাসায়নিকগুলো প্রতিরোধ করতে এবং সেবন করার জন্য বিশেষভাবে বানানো। মিড ওয়াশ প্রক্রিয়া চলাকালীন, নিবিড় রঞ্জনবিদ্যা এবং ব্লিচিংয়ের সময় মান বা রঙের সাথে আপস না করে মারাত্মকভাবে হ্রাস করা হয়। তাদের উদ্ভাবনী প্রক্রিয়ায় কম শক্তি, রাসায়নিক এবং পানি ব্যবহার করা হয় যা শিল্প ও পরিবেশকে পারস্পরিকভাবে নিরাপদ উৎপাদন পদ্ধতিতে উপকৃত করতে সহায়তা করে।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড এর পণ্যঃ

১। ফাইবারঃ
তারা লেনজিং মোডাল এবং টেনসিলি থেকে ব্র্যান্ডেড ফাইবারগুলো একত্রিত করে, যার ফলে তাদের ডেনিমগুলো পরতে আরামদায়ক, স্বাচ্ছন্দ্যকর এবং টেকসই করে তোলে। এই প্রাকৃতিক তন্তুগুলোর ব্যবহার নিশ্চিত করে যে তাদের পণ্য তুলা ব্যবহার না করে তৈরি করা হয়, যা অন্যতম কীটনাশক এবং পানির নিবিড় ফসল।
এমনকি তুলা ব্যবহার করা হলেও, এটি ১০০% জৈব, রাসায়নিক সার থেকে মুক্ত ভাবে আসে যার সবই পরিবেশগত পদ্ধতি ব্যবহার করে পরিচালিত হয়।

SHASHA ডেনিমসে তারা পুনর্ব্যবহারযোগ্য পলিয়েস্টার সুতা এবং প্রসারিত উপকরণগুলো ব্যবহার করে। তাদের বর্তমান উৎপাদন ক্ষমতা প্রতি বছর ২১.৬ মিলিয়ন গজ এ দাঁড়িয়েছে এবং তাদের সম্প্রসারণ কাজ চলছে যা শেষ হওয়ার পরে আরো বাড়ানো যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।
২। কাপড়ঃ
বিভিন্ন ধরণের ডেনিম কাপড় তৈরি করতে বর্তমানে তাদের প্রতি মাসে ২.১০ মিলিয়ন গজ ধারণক্ষমতা রয়েছে। তারা নীল রঙের হালকা ছায়া গো থেকে অন্ধকার রঙ এবং মসৃণ নীল পৃষ্ঠের মতো প্রভাব এবং টেক্সচারের পরিসীমা পর্যন্ত নীল হালকা ছায়া গো থেকে সমস্ত রঙের ডেনিম কাপড় সরবরাহ করে। তারা বৈশ্বিক গ্রাহকদের ৪.৫০ আউন্স থেকে শুরু করে ১৫ আউন্সের ডেনিম ফেব্রিক উৎপাদন করছে।


ডেনিম উৎপাদনের জন্য বৈশ্বিক অঙ্গনে তাদের আলাদা থাকার প্রচেষ্টা ডিইপিজেড অঞ্চলের বর্ধিত প্রকল্পে সর্বাধিক প্রযুক্তির নীল রঙের মেশিন স্থাপনের নেতৃত্ব দিয়েছে। এশিয়াতে প্রথমবারের মতো, এই নতুনত্বটি তাদের ডেনিম উৎপাদন প্রক্রিয়ায় মহাদেশ এবং বিশ্বজুড়ে ব্যবহৃত নীল রঙের মেশিনের তুলনায় ৬০% পানি সাশ্রয় করতে এবং ৪০% রাসায়নিক ব্যবহার সংরক্ষণ করতে সহায়তা করে।
৩। ডেনিম
বছরের পর বছর ধরে, সংস্থাটি অন্য কোনও ডেনিম প্রস্তুতকারক থেকে সেরা মানের ডেনিমের উৎপাদন নিশ্চিত করার জন্য তাদের সর্বোচ্চ প্রযুক্তি পরিবেশের জন্য গবেষণা ও উন্নয়নে বিনিয়োগ করে আসছে। তাদের সুবিধা এবং কারখানা শিল্প ও পরিবেশ-বান্ধব মেশিনগুলোর সাথে সজ্জিত যা স্বর এবং রঙের গভীরতার ক্ষেত্রে নীল ছায়া তৈরি করতে দেয়।


তাদের ক্রমাগত উন্নত উৎপাদন প্রক্রিয়াগুলো প্রতি স্তরে দক্ষ মানব মানব সম্পদকে জড়িত করে সমর্থন করে যা প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে বিশ্বমানের ডেনিম তৈরি করে। তাদের উচ্চ মানের ডেনিম পরিধান এর কার্যকরীতা, নান্দনিকতা এবং নবায়নযোগ্যতার বিষয়টি মাথায় রেখে সমস্ত বয়সের মানুষের জন্য উৎপাদিত হয়।

SHASHA ডেনিমস লিমিটেড এর বায়ারঃ
বর্তমান ক্রেতাদের মধ্যে রয়েছে
১।H&M,
২।O’STIN,
৩।Esprit,
৪।Debenhams,
৫।Marks & Spencer,
৬।LPP,
৭।Pull & Bear,
৮।S. Oliver,
৯।Bestseller,
১০।River Island
১১। Zara

যে কারণে SHASHA ডেনিমস অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে অন্যতমঃ

SHASHA ডেনিমস কিছু সহজ নীতি উপর ভিত্তি করে কাজ করে। তাদের ক্ষমতার পরিমাণ বা আকার অপ্রাসঙ্গিক কারণ তারা টেকসই, উদ্ভাবনী, ট্রেন্ডি এবং স্মার্ট প্রযুক্তি বান্ধব কাপড়ের সন্ধানকারী ক্রেতাদের জন্য বুটিক সরবরাহকারী হিসাবে নিজেদের নিয়ে সব সময় কাজ করে যাচ্ছে।
SHASHA ডেনিমস এ তাদেএ ৯০% পণ্য টেকসই এবং তারা তাদের ইকো বান্ধব পরিসর তৈরি করতে মূলত বিসিআই সুতি, টেনসেল, মডেল, প্রোমোডাল, ইনভেস্টা, হ্যাম্পের সাথে কাজ করছেন। নতুন পণ্য উদ্ভাবন SHASHA ডেনিমস লিমিটেড এর স্লোগান এবং মূলমন্ত্র। তাদের পণ্য পরিসীমার ওজন ৪ আউন্স থেকে ১৬ আউন্স পর্যন্ত কাপড় নিয়ে গঠিত এবং তাদের স্টে ব্ল্যাক, স্টে ইন্ডিগো, অ্যাডভান্সড ডেনিম, ওজোন ওয়াশ ফ্রেন্ডলি, কমফোর্ট / স্কিনি / ফ্লেক্স / আল্ট্রা ফ্লেক্স / দ্বি স্ট্রেচ / কটন ফ্রি রয়েছে। তাদের একটি বাড়ি পরীক্ষাগার রয়েছে যার বাড়ির পরীক্ষার জন্য সর্বশেষতম বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন এবং ডিজাইনারদের জন্য গবেষণার সুযোগ রয়েছে। তারা তাদের সমস্ত ক্লায়েন্টদের জন্য ওয়াশিং সলিউশন এবং ওয়ান স্টপ পরিষেবা সরবরাহ করেন। SHASHA ডেনিমস বিশ্বাস করে যে তাদের গৃহীত নীতিগুলো তাদের দৃষ্টিশক্তির সাথে ভালভাবে জড়িত, কারণ তারা ২০১১ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে বছরে ২০% এরও বেশি বৃদ্ধি অর্জন করে চলেছে।

SHASHA ডেনিমস এর মতে আন্তর্জাতিক ডেনিমের বাজারঃ

ডেনিমের জন্য আন্তর্জাতিক বাজার বছরের পর বছর ধরে একটি শক্তিশালী চাহিদা দেখিয়েছে। তারা সর্বশেষ ৯০ এর দশকে ডেনিম চক্রের ধীর গতি দেখেছেন। ডেনিমের জন্য চাহিদা দিন দিন বাড়ছে বলে তারা আজ অবধি টিকে আছেন। তবে সম্প্রতি তারা বাজারে বেশি সক্ষমতা এবং ঐতিহ্যবাহী ডেনিম ফেব্রিকের চাহিদা কমে যাওয়া লক্ষ্য করছেন। কিন্তু এর বীপরিত দিকে, তারা দেখছে যে টেকসই এবং প্রযুক্তিগত ডেনিম ফেব্রিকের চাহিদাতে অবিচ্ছিন্ন প্রবৃদ্ধি ঘটছে।
SHASHA ডেনিমস বছরের পর বছর ধরে তাদের ক্রেতাদের সাথে দৃঢ় সম্পর্ক স্থাপন করে আসছে। সময়ের সাথে তারা বছরের পর বছর ধরে তাদের বৃদ্ধিতেও সহায়তা করেছে।
SHASHA ডেনিমস বাংলাদেশে পরিচালিত প্রায় সকল ব্র্যান্ডের সাথে কাজ করে এবং বর্তমানে তারা নিজেরাই বিশ্বব্যাপী ডেনিম ফেব্রিক রপ্তানি শুরু করেছেন। যদিও এই ব্যবসাটি ছোট তবে এটি অবিচ্ছিন্ন গতিতে বাড়ছে। সামগ্রিকভাবে তাদের মূল ফোকাসটি এখনও ইউরোপীয় বাজারগুলোতে রয়েছে, যদিও তারা সম্প্রতি কিছু অপ্রথাগত বাজারের সাথে কাজ শুরু করেছে।

Writer:
Rafiul islam
SKTEC
Sr. Research Assistant, Bunon

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

এওপিটিবি’র মিলনমেলা

সমগ্র বাংলাদেশের অল ওভার প্রিন্টিং সেক্টর নিয়ে কাজ করা সকল ইঞ্জিনিয়ার ও টেকনোলজিস্টদের প্রাণের সংগঠন “অল ওভার প্রিন্টিং টেকনোলজিস্টস অব বাংলাদেশ”।সংগঠনটির...

ভিয়েতনামের বিকল্প খুজঁছে বিশ্বের বিভিন্ন খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান

সাধারনত যে সকল খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো জুতা ও পোশাকের জন্য ভিয়েতনামের কারখানাগুলোর ওপর নির্ভরশীল তারা ভিয়েতনামের বিধিনিষেধের ব্যাপারে খুবই চিন্তিত। যদিও...

অনাবিল প্রশান্তির মনোরম পরিবেশে গড়ে উঠেছে ফতুল্লা এপারেল

তৈরী পোশাক শিল্প বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রধান হাতিয়ার। দেশের মোট রফতানি আয়ের  ৮৪% আসে পোশাক খাত থেকে। তাই দিন দিন দেশে...

রপ্তানিতে ভিয়েতনামকে ছাড়িয়ে যাওয়ার জন্য বাণিজ্য নীতির সংস্কারের বিকল্প নেই : বিশেষজ্ঞরা

ব্যাপক বাণিজ্য কূটনীতির সংস্কার এবং অর্থনৈতিক নীতির উন্মুক্ততা ভিয়েতনামকে আজ সেরা ২০ টি দেশের তালিকায় আসতে সাহায্য করেছে। উদাহরনসরূপ ১৯৮০-৯০ সালের...

পৃথিবীর সব থেকে লাক্সারিয়াস ফেব্রিক ভিকুনা’র আদ্যোপান্ত | Vicuna: The Most Luxurious Fabric In The World

মানুষের মৌলিক চাহিদার মধ্যে অন্যতম চাহিদা হলো বস্ত্র। আদিমকাল থেকে মানুষ নিজের লজ্জাস্থান ঢাকার জন্যই শুধু নয় - শীত, বৃষ্টি ,...

সর্বাধুনিক টেক্সটাইল যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি | Latest Textile Equipment and Technology.

টেক্সটাইলগুলো তাদের সর্বজনীনত্বার কারণে সাংস্কৃতিক অধ্যয়নের জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ উৎস। টেক্সটাইল সাধারণত মানব, দেবতা, প্রাণী, আসবাবপত্র এবং মেঝে এই সব কিছুকেই...

আরএসসি এর নিকট দায়িত্ব হস্তান্তর অ্যাকর্ড এর

সম্প্রতি অ্যাকর্ড তাদের অগ্নি সুরক্ষা সহ সকল প্রকার অফিশিয়াল দায়িত্বসমূহ হস্তান্তর করে দেয় আরএসসির এর কাছে। গত ১জুন, ২০২০ অফিশিয়ালি এসব...