28 C
Dhaka
Monday, September 27, 2021
Home News & Analysis Industry News বেড়েছে সুতার দাম, বিপাকে পড়েছে বাংলাদেশের পোশাকশিল্প

বেড়েছে সুতার দাম, বিপাকে পড়েছে বাংলাদেশের পোশাকশিল্প

আমাদের দেশের অন্যতম প্রধান খাত বস্ত্র। আর এ খাতের প্রধান কাঁচামাল তুলা। গত বছরের শুরুতে তুলার দাম  কিছুটা কমতে থাকে। কিন্তু জুলাইয়ের পর থেকে বাড়তে থাকে তুলার দাম।ফলে দেশের বাজারে সুতার দাম বেড়েছে। এতে বেড়েছে  পোশাকের উৎপাদন খরচ। পোশাকের উৎপাদন বাড়লেও প্রস্তুতকারকরা ক্রেতাদের কাছ থেকে বাড়তি অর্থ আদায় করতে পারছেন না। ফলে নতুন করে বিপদে পড়ছেন তৈরি পোশাকশিল্পের উদ্যোক্তারা। এছাড়া করোনা কালে রপ্তানিমুখী পোশাক খাতকে কঠিন সময় পার করতে হচ্ছে। ফলে লোকসানের সম্মুখীন হতে হচ্ছে পোশাক শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মালিকদের।

গত এক মাসের ব্যবধানে সাধারণ সুতার দাম কেজিতে ২৫-৩০ সেন্ট পর্যন্ত বেড়েছে। আর অর্গানিক সুতার দাম বেড়েছে ৬০-৮০ সেন্ট পর্যন্ত। উৎপাদকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ৩০ কার্ডেড সুতা কয়েক মাস আগে প্রতি কেজি ২ ডলার ৬০ সেন্ট থেকে ২ ডলার ৮০ সেন্টে বিক্রি হয়েছে। কিন্তু এখন এটি বিক্রি হচ্ছে ৩ দশমিক ৬০ থেকে ৩ দশমিক ৭৫ সেন্টে।

অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাজারেও তুলার দাম কিছুটা বাড়েছে।চীনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এবার তুলার উৎপাদন কম হয়েছে। তা ছাড়া চীনারা প্রচুর পরিমাণে তুলা ও সুতা কিনে মজুদ করে রেখেছে। সে কারনে আন্তর্জাতিক বাজারে তুলার দাম তুলনামূলক বেশি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মূলত দুইটি কারনে সুতার দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রথমত, করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কাঁচামাল রপ্তানিকারকরা দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে।

দ্বিতীয়ত, পরিস্থিতি আরও অবনতি হওয়ার আশঙ্কায় চীন ও মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ বিপুল পণ্য মজুত করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে।

বর্তমানে পোশাক শিল্পে প্রচুর ক্রয়াদেশ আসলেও উদ্যোক্তারা তা নিতে পারছেন না সুতার এই অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কারনে।ফলে ক্রয়াদেশে লোকসানের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। সুতার দাম বাড়ায় কাপড়ের দামও বেড়েছে। সে জন্য চলমান ও নতুন ক্রয়াদেশের মধ্যে যেসব কারখানার সুতা বা কাপড় কেনা হয়নি, সেগুলোর উৎপাদন খরচ বেড়েছে। কিন্তু ক্রেতারা পোশাকের বাড়তি দাম দিচ্ছেন না। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে পোশাকশিল্পের মালিকদের।

বাংলাদেশ নিটওয়্যার মেনুফ্যাকচারিং অ্যান্ড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, শিল্পের কাঁচামালের দাম বৃদ্ধিতে আমরা অত্যন্ত বিপাকে। বিশেষ করে সুতার দাম অনেক বেশি বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, দেড় মাস আগে আমরা রপ্তানির অর্ডার নিয়েছিলাম। ওই সময়ে প্রতি কেজি সুতার দাম ছিল ২ দশমিক ৭ থেকে ৩ ডলার। বর্তমানে ওই সুতার দাম ৪ ডলারের উপরে।এতে পণ্যের খরচ অনেক বেশি বেড়েছে। কিন্তু বিদেশি ক্রেতারা দাম বাড়াচ্ছে না। ফলে তাদের অর্ডারকৃত পণ্য সরবরাহ করা যাচ্ছে না। দ্বিতীয়ত, নতুন কোনো অর্ডারও নেওয়া যাচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, এ অবস্থায় আমাদের কিছু করারও নেই। কারণ আন্তর্জাতিক বাজার আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। তার মতে, এই বাজার চীনসহ কয়েকটি দেশের মাফিয়াদের দখলে। তারা কারসাজি করে এভাবে দাম বাড়াচ্ছে।

রিপোর্টার:
আব্দুল কাদের জিলানী
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি
ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর, বুনন

Most Popular

এওপিটিবি’র মিলনমেলা

সমগ্র বাংলাদেশের অল ওভার প্রিন্টিং সেক্টর নিয়ে কাজ করা সকল ইঞ্জিনিয়ার ও টেকনোলজিস্টদের প্রাণের সংগঠন “অল ওভার প্রিন্টিং টেকনোলজিস্টস অব বাংলাদেশ”।সংগঠনটির...

ভিয়েতনামের বিকল্প খুজঁছে বিশ্বের বিভিন্ন খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান

সাধারনত যে সকল খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো জুতা ও পোশাকের জন্য ভিয়েতনামের কারখানাগুলোর ওপর নির্ভরশীল তারা ভিয়েতনামের বিধিনিষেধের ব্যাপারে খুবই চিন্তিত। যদিও...

অনাবিল প্রশান্তির মনোরম পরিবেশে গড়ে উঠেছে ফতুল্লা এপারেল

তৈরী পোশাক শিল্প বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রধান হাতিয়ার। দেশের মোট রফতানি আয়ের  ৮৪% আসে পোশাক খাত থেকে। তাই দিন দিন দেশে...

রপ্তানিতে ভিয়েতনামকে ছাড়িয়ে যাওয়ার জন্য বাণিজ্য নীতির সংস্কারের বিকল্প নেই : বিশেষজ্ঞরা

ব্যাপক বাণিজ্য কূটনীতির সংস্কার এবং অর্থনৈতিক নীতির উন্মুক্ততা ভিয়েতনামকে আজ সেরা ২০ টি দেশের তালিকায় আসতে সাহায্য করেছে। উদাহরনসরূপ ১৯৮০-৯০ সালের...

IEOM WUB কর্তৃক আয়োজিত হয়েছে ক্যারিয়ার বিষয়ক সেমিনার

প্রায় ১৭ মাসের করোনা মহামারির প্রভাবে শিক্ষা,স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক সেক্টরে যে নিম্নমুখী অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে তা থেকে উত্তরনে নব উদ্যোমে, মেধার...

অর্গানিক কটন | Organic Cotton

আমাদের বস্ত্রশিল্পের সর্বোচ্চ ব্যবহৃত কাচামাল হচ্ছে কটন যা ইন্ডিয়া, মিশর, তুরস্ক, চীন, কিরগিজস্থান, আমেরিকার সহ বিভিন্ন দেশে উৎপাদিত হয়ে থাকে। কটন...

আরএসসি এর নিকট দায়িত্ব হস্তান্তর অ্যাকর্ড এর

সম্প্রতি অ্যাকর্ড তাদের অগ্নি সুরক্ষা সহ সকল প্রকার অফিশিয়াল দায়িত্বসমূহ হস্তান্তর করে দেয় আরএসসির এর কাছে। গত ১জুন, ২০২০ অফিশিয়ালি এসব...