20 C
Dhaka
Wednesday, January 27, 2021
Home Technology Machinery & Equipment টেক্সটাইল মেশিনগুলি আবিস্কারের সময় | A timeline of textile machinery invention.

টেক্সটাইল মেশিনগুলি আবিস্কারের সময় | A timeline of textile machinery invention.

প্রাচীন এবং প্রাগৈতিহাসিক সময়কাল

১. ২৮০০ খ্রিস্টপূর্ব – রাশিয়ার কোস্টেনকিতে ব্যবহৃত হয় সেলাই মেশিন।

২. ৬৫০০ খ্রিস্টপূর্ব – তে ইসরায়েলের অঞ্চলের নাহাল হেমার গুহায় নালেবাইন্ডিং ফেব্রিক পাওয়া যায়। এই ফেব্রিক তৈরীর কৌশলে সর্ট লেন্থের ইয়ার্ন ব্যবহার করে, নীটিং ( কন্টিনিউয়াস সুতার সাহায্যে) ইয়ার্নকে লুপের মাধ্যমে টানা হয়েছিলো। সূক্ষ্ম পন্য নীট করে তৈরি করতে অনেক বেশি দক্ষতার প্রয়োজন ছিলো।

৩. খ্রিস্টপূর্ব ৪২০০ – ডেনমার্কে নালেবাইন্ডিংয়ের মেসোলিথিক ব্যাবহারের উদাহরণ পাওয়া যায়, যা উত্তর ইউরোপে প্রযুক্তির বিস্তারকে চিহ্নিত করে।

৪. ২০০ খ্রিস্টপূর্ব থেকে ২০০ খ্রিস্টাব্দ – পেরুতে “নীডেল নিটিং” ব্যাবহারের প্রমাণ পাওয়া যায় , স্প্যানিশদের সাথে তাদের স্থানীয় যোগাযোগের পূর্বে একপ্রকারের নালেবাইন্ডিংয়ের উদাহরণ এটি।

৫. ২৯৮ খ্রিস্টাব্দ – প্রথম পা চালিত লুম ব্যাবহার প্রমাণ পাওয়া যায় , এটি টারসুস এ আবিষ্কার হয়েছিল।

মধ্যযুগীয় টেক্সটাইল মেশিনারি আবিষ্কারের ইতিহাসঃ

১. ৫০০ খ্রিস্টাব্দ – হ্যান্ডহেল্ড রোলার কটন জিনগুলি ভারতীয় উপমহাদেশে আবিষ্কার হয়েছিল

২. ৫০০-১০০০ খ্রিস্টাব্দ – স্পিনিং চাকাটি ভারতীয় উপমহাদেশে আবিষ্কার হয়েছিল।

৩. ১০০০ খ্রিস্টাব্দ – কন্টিনিউয়াস থ্রেড ব্যবহার করে নীট করা তৈরি কটন মোজার সূক্ষ্মভাবে ডেকোরেট করার উদাহরণসমূহ পাওয়া যায়।

৪. ১০০০ খ্রিস্টাব্দ – স্পিনিং হুইলটির প্রথম দিকের স্পষ্ট চিত্রগুলি পাওয়া যায় যে এটা ইসলামী বিশ্ব থেকে এসেছে।

৫. ১১০০-১৩০০ খ্রিস্টাব্দ -সালে ডাবল-রোলার কটন জিনগুলি ভারত এবং চীনে দেখা যায়।

৬. ১২০০-১৩০০ খ্রিস্টাব্দ – সালে ওয়ার্ম গিয়ার রোলার কটন জিনটি প্রথম উপমহাদেশে দিল্লির সুলতানির যুগে উদ্ভাবিত হয়েছিল।

৭. ১৪০০-১৫০০ খ্রিস্টাব্দ – সালে কটন জিনে ক্র্যাঙ্ক হ্যান্ডেলটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল, প্রথমবারের মতো দিল্লির সুলতানাত বা প্রাথমিক মুঘল সাম্রাজ্যের সময় কিছুটা সময় ভারতীয় উপমহাদেশে দেখা দিয়েছিলো।

৮. ১৫৬২ -সালে স্পেনের টলেডোতে অবস্থিত একটি প্রাচীন সমাধি থেকে পার্ল স্টিচ ব্যবহারের প্রথম উদাহরণ পাওয়া যায় , পাওয়া প্যানেলগুলি সার্কুলার ভাবে নীট করা ছিলো। পূর্বে সে উপাদান গুলি সার্কুলার গুলি নীট করা হত টিউব ফর্মে, পরে কেটে ওপেন করা হতো।

৯. ১৫৮৯ – সালে উইলিয়াম লি স্টকিং ফ্রেম আবিষ্কার করেন, এটা ছিলো প্রথম হাতে চালিত ওয়েফট নীটিং মেশিন।

আধুনিক যুগের প্রাথমিক সময়কালের টেক্সটাইল মেশিনের আবিস্কার সমুহঃ

১. ১৬০০ -সালে আধুনিক স্পিনিং হুইলটি ফ্লায়ার হুইলে ট্রেডল যোগ করার সাথে একসাথে আসে।

২. ১৭২৫ -সালে লিয়নের বেসাইল বোচন লুমকে নিয়ন্ত্রণ করার উপায় হিসাবে পাঞ্চ পেপার ডেটা স্টোরেজ ডিভাইস আবিষ্কার করেছিলেন।

৩. ১৭৩৩ – সালে জন কে ফ্লাই শাটলের পেটেন্ট করে।

৪. ১৭৩৮ – সালে লুইস পল ড্র রোলারের পেটেন্ট করলেন।

৫. ১৭৪৫ – সালে লাইনের জ্যাক ভ্যাকানসন প্রথম সম্পূর্ণ অটোমেটিক লুম আবিষ্কার করেন।

৬. ১৭৫৮ – সালে জেদীদিয়া স্ট্রুট এইভাবে রিব ফ্রেম তৈরি করে উইলিয়াম লির স্টকিং ফ্রেমে দ্বিতীয় সেট নিডেল যুক্ত করেছিলেন। যা দিয়ে রিব ফেব্রিক তৈরী হতো।

৭. ১৭৬৮ – সালে জেমস হারগ্রিভস বা থমাস হাইস স্পিনিং জেনি আবিষ্কার করেছিলেন (১৭৭০ পেটেন্ট করেছেন)।

৮. ১৭৬৭ – সালে জন কে স্পিনিং ফ্রেম আবিষ্কার করেছিলেন।

৯. ১৭৬৮ – সালে জোসিয়াহ ক্রেন হাতে চালিত ওয়ার্প নীটিং যন্ত্রটি আবিষ্কার করেছিলেন।

১০. ১৭৬৯ – সালে রিচার্ড আরকউরাইটের ওয়াটার ফ্রেম আবিস্কার করেন।

১১. ১৭৬৯ -সালে স্যামুয়েল ওয়াইস , ডাব্লু লির স্টকিং ফ্রেমের ম্যাকানাইজেশন প্রবলেম সমাধান করেন।

১২. ১৭৭৯ – সালে স্যামুয়েল ক্রম্পটন স্পিনিং মুল আবিষ্কার করেছিলেন।

১৩. ১৭৮৪ – সালে এডমন্ড কার্টরাইট পাওয়ার লুম আবিষ্কার করে।

১৪. ১৭৯১ -সালে ইংরেজ ডসন ওয়ার্প নীট মেশিনের ম্যাকানাইজেশন করে প্রবলেম সলভ করে।

১৫. ১৭৯৩ – সালে বেলপারের স্যামুয়েল স্লেটার পাভটকেটে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম সফল কটন স্পিনিং মিল প্রতিষ্ঠা করেছেন; “রোড আইল্যান্ড সিস্টেম” এর সূচনা করেন।

১৬. ১৭৯৪ – সালে এলি হুইটনি কটন তার জিনকে পেটেন্ট করেন।

১৭. ১৭৯৮ – সালে ফরাসীম্যান ডিক্রোইক্স (বা ডিক্রয়েজ) সার্কুলার ব্রেইড নীটিং মেশিনকে পেটেন্ট করেন।

১৮. ১৮০১ – সালে জোসেফ মেরি জ্যাকার্ড তার নামে জ্যাকার্ড পাঞ্চ কার্ড লুম আবিষ্কার করেছিলেন।

১৯. ১৮০৬ – সালে পিয়েরে জানান্ডাউ প্রথম ল্যাচ নিডেল (নীটিং মেশিনে ব্যবহারের জন্য) পেটেন্ট করেন।

২০. ১৮০৮ – সালে জন হিথকোট বোবিন নেট মেশিনটিকে পেটেন্ট করেছিলেন।

২১. ১৮১২ – সালে সামুয়াল ক্লার্ক এবং জেমস মার্ট পুশার মেশিনটি তৈরি করেছিলেন।

২২. ১৮১৩ -সালে উইলিয়াম হরোকস পাওয়ার লুম ডেভেলপমেন্ট করেন।

২৩. ১৮১৪ – সালে বোস্টন ম্যানুফ্যাকচারিং সংস্থার পল মুডি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম পাওয়ার লুম তৈরি করেছিলেন; “ওয়াল্থাম সিস্টেম” এর সূচনা

২৪. ১৮২৩ – বোস্টন ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির প্রয়াত ফ্রান্সিস ক্যাবট লোয়েলের সহযোগীরা ম্যাসাচুসেটস এর পূর্ব চেমসফোর্ডের মেরিম্যাক ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানিতে কার্যক্রম শুরু করে। ১৮২৬ সালে, পূর্ব চেলসফোর্ড মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস লোয়েল প্রথম কারখানার শহর হিসাবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল।

২৫. ১৮২৮ – সালে পল মুডি লেদার বেল্ট এবং পুলি দিয়ে পাওয়ার ট্রান্সমিশন সিস্টেমটি ডেভেলপ করেছিলেন , যা মার্কিন মিলগুলির জন্য স্টেন্ডার্ড হয়ে উঠে।

আধুনিক সময়কাল টেক্সটাইল মেশিন আবিষ্কার সমুহঃ

১. ১৮৩০ – সালে বার্থলেমি থিমোননিয়ার প্রথম ফাংশনাল সেলাই মেশিনটি ডেভলপ করেন।

২. ১৮৩৩ – সালে ওয়াল্টার হান্ট লকস্টিচ সেলাই মেশিন আবিষ্কার করেন তবে এটির কার্যক্রমে তিনি অসন্তুষ্ট ছিলেন , যার কারনে এটি তিনি পেটেন্ট করেননি।

৩. ১৮৪২ – সালে ল্যাঙ্কাশায়ার তাঁত বা লুম ডেভলপ করেন Bullough and Kenworthy , এটি ছিলো সেমি অটোমেটিক লুম।

৪. ১৮৪২ – সালে যুক্তরাষ্ট্রের জন গ্রিনিফ প্রথম সেলাই মেশিনের পেটেন্ট করেছিলেন।

৫. ১৮৪৪ -সালে সালফোর্ডের জন স্মিথ একটি শাটললেস র‌্যাপিয়ার তাঁতের জন্য পেটেন্ট পেয়েছিলেন।

৬. ১৮৪৬ -সালে জন লাইভসি হিথকোটের বোবিনেট মেশিনটিকে পর্দা মেশিনে রূপান্তরিত করে

৭. ১৮৪৭ -সালে উইলিয়াম ম্যাসন তার “ম্যাসন সেল্ফ-একটিং” মুলকে পেটেন্ট করেছিলেন।

৮. ১৮৪৯ – ম্যাথু টাউনসেন্ড ল্যাচ নিডেলের ভেরিয়েন্ট পেটেন্ট করে যা ওয়েফট নীটিং মেশিনে সর্বাধিক ব্যবহৃত নিডেল।

৯. ১৮৫৫ – সালে রেডগেট একটি সার্কুলার লুম সাথে একটি ওয়ার্প নীটিং মেশিনের সাথে কম্বাইন্ড করেছিলেন

১০. ১৮৫৬ -সালে লিসেস্টার টমাস জ্যাকক টিউবুলার পাইপ যৌগিক সুইকে পেটেন্ট করেছিলেন।

১১. ১৮৫৭ – সালে লুক বার্টন এস ওয়াইসের নীটিং মেশিনে একটি সেল্ফ একটিং নেরো নীট ম্যাকানিজম প্রবর্তন করেছিলেন।

১২. ১৮৫৭ – সালে আর্থার পেজেট “পেজেট-মেশিন” নামে একটি মাল্টি হেড নীটিং মেশিনকে পেটেন্ট করেছিলেন।

১৩. ১৮৫৮ – সালে উইলহেলম বারফুস রেডগেটস মেশিনে উন্নত করেন , যাকে বলা হয় রাসেল মেশিন বলা হয় ( ফরাসি অভিনেত্রী এলিজাবেথ ফ্যালিস রাচেলের নামে নামকরণ করেন )।

১৪. ১৮৬৪ – সালে উইলিয়াম কটন তার (“কটন মেশিন”) নামকরণ করা সোজা বার বোনা মেশিনকে পেটেন্ট করে।

১৫. ১৮৬৫ – সালে আমেরিকান আইজাক উইক্সম ল্যাম্ব ল্যাচ সূঁচ ব্যবহার করে ফ্ল্যাট বোনা মেশিনটিকে পেটেন্ট করে।

১৬. ১৮৬৫ – সালে ক্লে ডাবল-হেড ল্যাচ সুই আবিষ্কার করেন যা পার্ল স্টিচ নীট করতে সক্ষম করেছে।

১৭. ১৮৬৬ – সালে আমেরিকান ম্যাক ন্যারি হিল সার্কুলার নীটিং মেশিন ( ভার্টিকেল নিডেল যুক্ত ) পেটেন্ট করেন যা দিয়ে মোজা এবং স্টকিংগুলি তৈরি করেন।

১৮. ১৮৭৮ – সালে হেনরি গ্রিসওয়াল্ড সার্কুলার নীটিং মেশিনে দ্বিতীয় সেট নিডেল (হরাইজন্টাল নিডেল ) যুক্ত করেন যা মোজার কাফ এবং রিব ফেব্রিক নীট করতে সক্ষম ছিলো।

১৯. ১৮৮১ – সালে পিয়ের ডুরান্ড টিউবুলার পাইপ কম্বাইন্ড নিডেল আবিষ্কার করেন।

২০. ১৮৯০ – সালে বার্মেন ​​মেশিন ডেভলপ হয়।

২১. ১৮৮৯ – সালে ড্রপার কর্পোরেশন নর্থরোপ লুমে , প্রথম স্বয়ংক্রিয় বোবিন চেইঞ্জিং ম্যাকানিজম স্থাপন করা হয়। যা ৭০০,০০০ এরও বেশি বিশ্বব্যাপী বিক্রি হয়।

২২. ১৯০০ -সালে হেনরিখ স্টল ফ্ল্যাট বেড পার্ল নীটিং মেশিন তৈরি করে।

২৩. ১৯১০ – স্পায়ারস ফ্লট বেড purl স্টিচ মেশিন আবিষ্কার।

২৪. ১৯২০ – সালে জর্জ হ্যাটারসিলি এবং সন্স হ্যাটার্সলে লুম ভেভলপ করেন।

২৫. ১৯২৪ – সালে সেলেনিস কর্পোরেশন প্রথম অ্যাসিটেট ফাইবার উৎপাদন শুরু করে।

২৬. ১৯২৮ – সালে প্রতিষ্ঠা হয় ইন্টারন্যাশনাল ব্যুরো অফ স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন অফ ম্যানমেড ফাইবার্স।

২৭. ১৯৩৯ – সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উলের পণ্যগুলির লেবেলিং আইন পাস করে, অরিজিন অনুসারে উলের পণ্যগুলির লেবেলিং বাধ্যতামূলক করা হয়।

২৮. ১৯৪০ – সালে স্পেকট্রোফোটোমিটার আবিষ্কার হয়েছিল বাণিজ্যিক টেক্সটাইল ডাইংয়ের উপর এর প্রভাব পড়ে।

২৯. ১৯৪২ -সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফ্যাব্রিক সিনেজিং পদ্ধতি আবিষ্কারের জন্য প্রথম পেটেন্ট করা হয়।

৩০. ১৯৪৯ – সালে হেইনিরিচ মাউসারবার্গার সেলাই- নীটিং টেকনিক যুক্ত “ম্যালিমো” মেশিন আবিষ্কার করেছিলেন।

৩১. ১৯৫৫ – সালে মাল্টি-ফেজ ওয়েফট ইন্সার্টশন নিয়ে গবেষণা শুরু হয়। ৮০ এর দশক এবং ৯০ এর দশকের শেষভাগ পর্যন্ত সফলতা আসেনি।

৩২. ১৯৫৬ – সালে আমেরিকার ডুপন্ট সেরফ সুতা স্পিনিং জন্য একটি প্রক্রিয়া আবিস্কার করেন , এটি এয়ার-জেট স্পিনিংয়ের পূর্বসূরী আবিষ্কার।

৩৩. ১৯৬০ সালে বিদ্যমান মেশিনগুলি কম্পিউটারাইজড নিউমেরিক কন্ট্রোল (CNC) সিস্টেম ডিজাইন এর কম্বিনেশনে আরও সঠিক এবং দক্ষ অ্যাকিউরেট কাজ করতে সক্ষম হয়।

৩৪. ১৯৬০ – মার্কিন টেক্সটাইল ফাইবার পণ্য শনাক্তকরণ আইন পাস করে, টেক্সটাইল পণ্যগুলির লেবেলিং, ইনভয়েস এবং এড বাধ্যতামূলক করে।

৩৫. ১৯৬৩ – সালে চেকোস্লোভাকিয়ায় ওপেন-এন্ড স্পিনিংয়ের বা রোটর স্পিনিংয়ের বিকাশ ঘটে।

৩৬. ১৯৬৫ – সালে ডনলপ রাবার পলিউরেথেন শিট দুটিকে আল্ট্রাসনিক ভাইব্রেশনের সাহায্যে ফিউজিং করার জন্য পেটেন্ট পায় , এই আবিস্কার টেক্সটাইল কোটিং এর পূর্বসূরী।

৩৭. ১৯৬৮ – সালে ফ্যাব্রিক pleating মেশিন জার্মানিতে পেটেন্ট করা হয়।

৩৮. ১৯৭৯ – মুরটা ম্যানুফেকচারিং কোম্পানি ইয়ার্নের এয়ার splicing পদ্ধতি প্রদর্শন করে।

৩৯. ১৯৮১ – সালে প্রথম এয়ার জেট স্পিনিং মেশিন মার্কিন বাজারে প্রবেশ করে।

৪০. ১৯৮৩ – সালে “বোনাস মেশিন কোম্পানি লিমিটেড” প্রথম কম্পিউটার-নিয়ন্ত্রিত, জ্যাকার্ড লুম প্রেজেন্ট করে।

৪১. ১৯৮৮ -সালে প্রথম আমেরিকা “পিক অ্যান্ড প্লেস” রোবোটের জন্য পেটেন্ট পান ।

Writer:
Mazedul Hasan Shishir
CEO, Bunon

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি “ছায়া সংসদ” বির্তক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ওর্য়াল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

"করোনা মহামারীর শুরুতে দারিদ্রতা বাড়লেও এখন তা নিয়ন্ত্রনে। সরকারি হিসাবে সার্বিক দারিদ্র্যের হার ২০ থেকে ২২ শতাংশ। কিন্তু করোনা মোকাবিলায় সরকারি...

আড়ং বাংলাদেশের একটি হস্ত ও কারুশিল্প ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান

রিপোর্টারঃ দীপংকর ভদ্র দীপ্তজাতীয় বস্ত্র প্রকৌশল ও গবেষণা ইন্সটিটিউট (নিটার)ক্যাম্পাস এম্বাসেডর, বুনন দেশে দারিদ্র্য বিমোচন ও নারীর...

All Over Printing Technologist of Bangladesh – AOPTB পরিচালনা পর্ষদ এর ভার্চুয়াল মিটিং

ডেস্ক রিপোর্ট, বুনন টেক্সটাইল প্রিন্টিং এর জগতে বর্তমানে অন্যতম চাহিদার শির্ষে রয়েছে অলওভার প্রিন্টিং। বর্তমানে বাংলাদেশের প্রায়...

Rotary এবং Flat Bed মেশিনের পার্থক্য এবং এদের ফাংশন

Md Shawkat Hossain (Sohel) Manager:- CAD Unifill Composite Dyeing Mills Ltd Textile Printing বলতে আমরা যা বুঝি তা হল, এটি...

সর্বাধুনিক টেক্সটাইল যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি | Latest Textile Equipment and Technology.

টেক্সটাইলগুলো তাদের সর্বজনীনত্বার কারণে সাংস্কৃতিক অধ্যয়নের জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ উৎস। টেক্সটাইল সাধারণত মানব, দেবতা, প্রাণী, আসবাবপত্র এবং মেঝে এই সব কিছুকেই...

বাংলাদেশী ফ্যাশন ব্র্যান্ড , পর্ব-১ | Bangladeshi Fashion Brand, Part-1

পোশাকের চাহিদা বাংলাদেশের বরাবরের মতোই অন্যতম। বেশিরভাগ বাংলাদেশীরা এখন নিজেদের পরিধানের পোশাকের ডিজাইন ও গুনাগুত মান নিয়ে যথেষ্ট সচেতন। আর এই...

বুটেক্সে অনলাইন ক্লাস শুরু | Online Class started in BUTEX

করোনা মহামারীতে বিভিন্ন সেক্টরের সাথে তাল মিলিয়ে দেশের এডুকেশন সেক্টরেও নেমে আসে স্থবিরতা,বন্ধ হয়ে যায় দেশের সকল স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ সব ধরনের...